1. admin@updatedbarta24.com : admin :
তালাক গোপন করে ঘর-সংসার : শেরপুরে স্ত্রীর ধর্ষণ মামলায় স্বামীর যাবজ্জীবন - Updated Barta 24
শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ১১:৩৫ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
চৌহালীর দুর্গম চরে মানব সেবা ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্পেইন-২০২২ নওগাঁর মান্দায় শিক্ষক কল্যাণ সমবায় সমিতির বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত নওগাঁ জেলার ৩ উপজেলার ২৬ ইউনিয়ন ভোট গ্রহণ চলছে ইউপি নির্বাচন: শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় সরগরম সিরাজগঞ্জের চৌহালী নওগাঁর বদলগাছী জমি নিয়ে বিরোধে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবক খুন নওগাঁর মান্দায় বীর মুক্তিযোদ্ধার সন্তান হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার ঝিনাইগাতীর গৌরীপুর ইউনিয়নের নৌকার মনোনীত প্রার্থী বেকায়দায় আওয়ামীলীগের একাংশ বিদ্রোহী নওগাঁর পত্নীতলায় বিজিবি দিবস-২০২১ উদযাপিত নওগাঁর মান্দায় মিথ্যে প্রেমের অভিযোগ সইতে না পেরে স্কুল ছাত্রীর বিষপান সরিষা ক্ষেতের পাশে মৌবাক্স স্থাপন করে মধু সংগ্রহে ব্যস্ত খামারিরা

তালাক গোপন করে ঘর-সংসার : শেরপুরে স্ত্রীর ধর্ষণ মামলায় স্বামীর যাবজ্জীবন

এম শাহজাহান মিয়া, ঝিনাইগাতী (শেরপুর) প্রতিনিধি
  • আপডেট সময় : বুধবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২১
  • ২৫১ বার পঠিত

তালাকের বিষয় গোপন করে আড়াই বছর ঘর-সংসার করার অভিযোগে স্ত্রীর দায়ের করা ধর্ষণ মামলায় শেরপুরে একজনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ডের রায় দিয়েছে আদালত। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. আখতারুজ্জামান ২৩ নভেম্বর মঙ্গলবার দুপুরে এ সাজার রায় ঘোষণা করেন। মামলার শুরু থেকেই সাজাপ্রাপ্ত শ্রীবরদী উপজেলার গড়জরিপা গ্রামের বাসিন্দা শাহ আলী (৪৭) পলাতক রয়েছেন। রায়ের একইসাথে ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ দেওয়া হয়েছে। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের পিপি মো. গোলাম কিবরিয়া বুলু রায়ের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সদর উপজেলার বয়রা গ্রামের বাসিন্দা ভিকটিম নিজেই বাদী হয়ে ২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারী সদর থানায় মামলাটি দায়ের করেছিলেন। ঘটনাটি ২০১২ সালের ১৩ মে থেকে ২০১৪ সালের ১৪ নভেম্বরের মধ্যে ঘটেছে। ওই সময় স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার বিষয়টি গোপন রেখে স্ত্রী হিসেবে ভিকটিম বাদীর সাথে ঘরসংসার এবং শারীরিকভাবে মেলামেশা করেন সাজাপ্রাপ্ত শাহ আলী। মামলার নথির উদ্ধৃতি দিয়ে পিপি জানান, স্বামীর বিরুদ্ধে স্ত্রী ভিকটিমের দায়ের করা একটি যৌতুক মামলায় শাহ আলী ২০১৪ সালের ১২ ফেব্রুয়ারি আদালতে স্বেচ্ছায় আত্মসমর্পন করে ভিকটিমকে ২০১২ সালের ১৩ মে তালাক দিয়েছেন বলে উল্লেখ করেন। কিন্তু তখনও ভিকটিমের সাথে স্ত্রী হিসেবে ঘর সংসার করছিলেন শাহ আলী। ঘটনাটি জানার পর ২০১৫ সালের ২৫ জানুয়ারী শাহ আলী এবং তার বাবা-মা ও আরেকজন সহ ৪ জনকে আসামী করে ভিকটিম বাদী হয়ে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারায় ধর্ষণের অভিযোগে থানায় আরেকটি মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় সদর থানার তৎকালীণ এস্আই আবুল কালাম আজাদ শাহ আলী সহ ৪ জনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করলেও আদালত ৩ জনকে বাদ দিয়ে শাহ আলীর বিরুদ্ধে চার্জগঠন করেন। মামলার শুরু থেকেই অভিযুক্ত শাহ আলী পলাতক রয়েছেন। দীর্ঘ বিচারিক কার্যক্রম চলাকালে বাদী, তদন্ত কর্মকর্তা, চিকিৎসক সহ ৯ সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে মঙ্গলবার অভিযুক্ত পলাতক শাহ আলীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ২০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ের আরও ৬ মাসের কারাদণ্ডাদেশ ঘোষণা করেন। রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের পিপি গোলাম কিবরিয়া বুলু সন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর

ফেসবুকে আমরা